শুক্রবার, ১২ আগষ্ট ২০২২

শিরোনাম

প্রচ্ছদ /   সুবর্ণচরে বৃদ্ধার পায়ুপথে টর্চলাইট ঢুকিয়ে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে

সুবর্ণচরে বৃদ্ধার পায়ুপথে টর্চলাইট ঢুকিয়ে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে

সানজিদা হক অনু

রবিবার, জুলাই ৩, ২০২২

প্রিন্ট করুন

নোয়াখালীর সুবর্ণচরে শেখ নাসির উদ্দিন মাইজভান্ডারী (৬৫) নামের এক বৃদ্ধের পায়ুপথে টর্চলাইট ঢুকিয়ে হত্যাচেষ্টা করেছে দুর্বৃত্তরা। শনিবার (২ জুলাই) দিনগত রাত ১২টার দিকে চরওয়াপদা ইউনিয়নের থানারহাট সংলগ্ন আমানতগঞ্জে এ ঘটনা ঘটে।

বৃদ্ধ নাসির উদ্দিন চরওয়াপদা ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা এবং ওই ওয়ার্ডের ইউপি মেম্বার মো. রিপনের বাবা।

রোববার (৩ জুলাই) ভোরে আহত নাসির উদ্দিনকে স্বজনরা উদ্ধার করে ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে দেড়ঘণ্টা অস্ত্রোপচার করে টর্চলাইট বের করা হয়।

নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) ডা. সৈয়দ মহি উদ্দিন আবদুল আজিম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, জেনারেল সার্জন ডা. ফজলুর রহমান মানিকের নেতৃত্বে অস্ত্রোপচার করে টর্চলাইট বের করা হয়েছে। বর্তমানে রোগীকে হাসপাতালে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

ভুক্তভোগীর ছেলে ইউপি মেম্বার মো. রিপন অভিযোগ করে বলেন,‘আমার বাবা চট্টগ্রামে মাইজভান্ডারির সঙ্গে জড়িত। তিনি এলাকায় একটি মসজিদ ও মাদরাসা করার উদ্যাগে নিলে স্থানীয় চরওয়াপদা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. আবদুল মান্নান ভুইয়ার সঙ্গে বিরোধ সৃষ্টি হয়।

‘শনিবার রাতে আমার বাবা থানারহাট থেকে বাড়ি ফিরছিলেন। এ সময় পথে চেয়ারম্যানের ইন্ধনে ৯ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগ সভাপতি মো. শাহনেওয়াজের নেতৃত্বে একদল দুর্বৃত্ত তাকে ধরে জঙ্গলে নিয়ে বেদম মারধর করে। পরে একটি বড় টর্চলাইট তার পায়ুপথে ঢুকিয়ে হত্যাচেষ্টা চালানো হয়। এতে তিনি অজ্ঞান হয়ে পড়লে মৃত ভেবে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। জ্ঞান ফেরার পর তার চিৎকারে লোকজন এসে হাসপাতালে নিয়ে যান।’

তবে অভিযোগ অস্বীকার করেছেন চরওয়াপদা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মো. আবদুল মান্নান ভুইয়া। তিনি বলেন, ‘ঘটনাটি আমি জানিও না। লোকমুখে শুনেছি। দায়ী ব্যক্তিদের আইনের আওতায় আনার দাবি জানাই।’

মোবাইল বন্ধ থাকায় অভিযুক্ত যুবলীগ নেতা মো. শাহনেওয়াজের বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

এ বিষয়ে চরজব্বার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দেবপ্রিয় দাস বলেন, এ ঘটনায় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য এক উপ-পরিদর্শককে (এসআই) দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। অভিযোগ অনুযায়ী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন